+8801533443118 Info@bestaidbd.com

বিশ্ব স্ট্রোক দিবস প্রতিবছর ২৯ অক্টোবর উদযাপিত হয়। বিশ্বে প্রতি ৬ সেকেন্ডে একজন স্ট্রোকে আক্রান্ত হচ্ছেন। বছরে আক্রান্ত হচ্ছে ৬ কোটি এবং মারা যাচ্ছে ২ কোটি মানুষ। স্ট্রোকের কারণে দেড় কোটি লোক পঙ্গু হচ্ছে। প্রতি ৬ জনে ১ জনের স্ট্রোকে আক্রান্ত হবার ঝুঁকি থাকে।স্ট্রোকে আক্রান্তদের মধ্যে ৪০ ভাগ মারা যায়, আর ৩০ ভাগ পক্ষাঘাতগ্রস্ত হয়ে পড়েন। তারা বেঁচে থেকেও দুর্বিষহ জীবনযাপন করেন। আমাদের দেশে এখন ১৫ থেকে ২০ লাখ স্ট্রোকের রোগী রয়েছে।স্ট্রোক সম্পর্কে জনসচেতনতা বাড়ানোর লক্ষ্যে প্রতিবছর ২৯ অক্টোবর বিশ্ব স্ট্রোক দিবস উদযাপিত হয়।

📌 মস্তিষ্কে রক্ত সরবরাহ কোনো কারনে বিঘ্নিত হলে স্ট্রোক সংঘটিত হয়। বিশেষ করে রক্তনালী বন্ধ হয়ে কিংবা রক্তনালী ছিড়ে মস্তিষ্কে এই রক্ত সরবরাহ বিঘ্নিত হয়। রক্তে থাকে অক্সিজেন আর পুষ্টিগুণ। ফলে অক্সিজেনর অভাবে মস্তিষ্কের টিস্যুগুলো মারা যায়। স্ট্রোকের সবচেয়ে বড় কারন হলো উচ্চরক্তচাপ। সারাবিশ্বে মৃত্যুর তৃতীয় প্রধান কারণ স্ট্রোক।

স্ট্রোক প্রতিরোধে করণীয়:

কিছু ভালো অভ্যাস স্ট্রোকের ঝুঁকি কমিয়ে দিতে পারে। যেমন:

✅ ধূমপান ত্যাগ করা।
✅ নিয়মিত হালকা ব্যায়াম করা।
✅ অলস জীবনযাপন না করা।
✅ মাদক ও মদ্যপান থেকে বিরত থাকা।
✅ অধিক চর্বি ও কোলেস্টোরলযুক্ত খাবার কম খাওয়া।
✅ খাবারে লবণ কম খাওয়া।
✅ খাবারে শাকসবজির পরিমাণ বাড়ানো।
✅ মাংস কম খাওয়া, মাছ বেশি খাওয়া।